পোস্ট অফিসের ধামাকা স্কিম, বিনিয়োগ করলে টাকা ডবল, গ্যারান্টি সরকারের -India Post Scheme

বর্তমানে টাকা বিনিয়োগ করার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এবং ঝুকিহীন সংস্থা হল ভারতীয় ডাক বিভাগ। যদিও এর আগে আপনি অনেক স্কিমের নাম শুনেছেন, তবে আজকে যে স্কিমের নাম বলতে যাচ্ছি সেখানে আপনি নিমিষেই টাকা ডবল করতে পারবেন। আর শুধু তাই নয়, টাকা ডবল করার গ্যারান্টি দিচ্ছে সরকার খোঁদ। পোস্ট অফিসের এই স্কিমে ৫ লক্ষ টাকা জমা রাখলে পাবেন ১০ লক্ষ এবং ১০ লক্ষ টাকা জমা রাখলে পাবেন ২০ লক্ষ টাকা। আসুন তাহলে পোস্ট অফিসের সংশ্লিষ্ট স্কিম সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক। India Post Scheme

India post scheme

এর আগে আপনি হয়তো পোস্ট অফিসের বিভিন্ন স্কিমে টাকা বিনিয়োগ করেছেন, তবে আজকে যে এই স্কিমের খবর দিতে যাচ্ছি এই স্কিমে আপনি টাকা ডবল করতে পারবেন। এই সিমের নাম হল কিষান বিকাশ পত্র। এটি একটি সরকারি স্কিম এবং এখানে টাকা বিনিয়োগ করে রাখা ঝুঁকেহীন হবে। এক্ষেত্রে আপনাকে ৭.৫ শতাংশ হারে সুদ দেওয়া হবে। অর্থাৎ এক্ষেত্রে আপনি যে পরিমাণ টাকা রাখেন না কেন ১১৫ মাস অর্থাৎ ৯ বছর ৭ মাসে সেই টাকা ডবল হয়ে যাবে। India Post KVP Scheme

 

সাধারণত পোস্ট অফিসের এই স্কিমে আপনাকে ১১৫ মাসে টাকা ডবল করা হয়ে থাকে। তবে অনেক ক্ষেত্রে টাকা আগে থেকে তুলে নেওয়ার সমস্যা দেখা যা এই স্কিমে উল্লেখ করা হয়। এক্ষেত্রে আপনি ২ বছর ৬ মাস পর আপনার প্রয়োজন হলে অকাল প্রত্যাহার হিসেবে সেই টাকা তুলে নিতে পারবেন। এছাড়াও এই স্কিমে বিশেষ কয়েকটি নিয়ম রয়েছে যার ফলে আপনি যেকোনো সময় টাকা তুলে নিতে পারবেন। India Post Scheme

 

ভারতীয় পোস্ট অফিসের কিসান বিকাশ পত্র স্কিম এর মধ্যে ভারতের যে কোন নাগরিক আবেদন জানাতে পারবেন। এক্ষেত্রে প্রাপ্তবয়স্কদের অ্যাকাউন্ট খুলতে কোন বাধা বা বিপত্তি নেই। তাছাড়া এক্ষেত্রে ১০ বছরের বেশি বয়স শিশুরাও এই স্কিমে একাউন্ট খুলে বিনিয়োগ করতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে অস্বাস্থ্যকর মনের মানুষ অথবা অপ্রাপ্তবয়স্ক শিশুর ভয়ে কোন অভিভাবক অ্যাকাউন্ট খুলে বিনিয়োগও করতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে NRI দের কোনরকম সুযোগ দেওয়া হবে না। India Post Kishan Vikash Patra Scheme

 

এবার সব থেকে বড় প্রশ্ন হচ্ছে এই স্কিমে কিভাবে আবেদন করবেন এবং কি কি প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস লাগবে। এই স্ক্রিনের সুবিধা পেতে গেলে বা অ্যাকাউন্ট খুলতে গেলে আপনাকে পোস্ট অফিসের শাখায় গিয়ে যোগাযোগ করতে হবে। এক্ষেত্রে আবেদন করার পূর্বে পোস্ট অফিসের কর্মীর সঙ্গে ভালোভাবে বিষয়টি আলোচনা করে নিবেন এবং এরপর এখন খুলতে পারেন। এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস হিসেবে আপনাকে আধার কার্ড, প্যান কার্ড, বয়সের প্রমাণ পত্র ও অন্যান্য ডকুমেন্টস সাথে নিয়ে যেতে হবে। India Post Scheme